বাংলাদেশের জনপ্রিয় সাহিত্যিক হাসনাহেনা রানু’র কথা সাহিত্য “আঠারো বাঁকির তীর ছুঁয়ে”

বাংলাদেশের জনপ্রিয় সাহিত্যিক হাসনাহেনা রানু’র কথা সাহিত্য “আঠারো বাঁকির তীর ছুঁয়ে”

আঠারো বাঁকির তীর ছুঁয়ে

______//হাসনাহেনা রানু, খুলনা থেকেঃঃ

ইথার থেকে বেড়ীবাঁধে —-
কালের খেয়ায় ভেসে আঠারো বাঁকির তীর ছুঁয়ে
তোমার দীর্ঘ অপেক্ষার দূরত্ব ক্রমশই আমাকে কষ্ট দেয় তিল তিল করে—
প্রতিটি সকাল দুপুর,
পড়ন্ত বিকেলের ভাঁজে
দীর্ঘশ্বাসের দৌরাত্ম বেড়ে যায়
নিঃশব্দ রাত্রির বুকে ।

কোথায় আছ , কোন সে সুদূরে
তুমি দূরে আছ বলেই—–
কষ্টের নীলাকাশটা বড় বেশী নির্বিকার,
আকাশ বুকে ভারী মেঘ জমেছে—-
অথচ বৃষ্টি হয় না
কতকাল,
কতবার তোমাকে বলেছি,
একবার তুমি এসো —
খোঁপার বাঁধন খুলে,রুমঝূম বৃষ্টি নামুক,
অভিমানী মন ধুয়ে যাবে
এক পশলা বৃষ্টিতে —-!

আমি নীলাকাশ দেখিনি,
তোমাকে দেখেছি অনুভবের তীক্ষ্ম দৃষ্টিতে —
আমি গভীর সমুদ্র দেখিনি, তোমাকে ছুয়েছি
দিগন্তের নীলিমায় তোমার জন্য..
প্রতিক্ষণ প্রতিটি মূহুর্ত এক ব‍্যাকুলতার সমুদ্র পাড়ি দিই —
আমার ভেতরে কেবলই গভীর শূন্যতার শিহরণ বাতাসের সাদা ঠোঁটে শীষ দিয়ে যায়।##

Comments

comments