বাংলাদেশের উদীয়মান কবি ও সাহিত্যিক হাসনাহেনা রানু’র কবিতা “মেঘ অরণ্যে বিন্দু বিন্দু ভালবাসা”

বাংলাদেশের উদীয়মান কবি ও সাহিত্যিক হাসনাহেনা রানু’র কবিতা “মেঘ অরণ্যে বিন্দু বিন্দু ভালবাসা”

                মেঘ অরণ্যে বিন্দু বিন্দু ভালবাসা

_____________//হাসনাহেনা রানু, খুলনা থেকেঃঃ

জানি তোমার কাছে এ নিছক প্রেম নয় অরণ‍্য
তবু তোমার সঙ্গে কষ্টের বাঁধনে বাঁধা পড়া ,
তুমি চুপে চুপে এসেছিলে
ঘাস ফড়িং ছায়া নীড়ে–
আমি কিছুটা সময় ছিলাম তোমার মন অরণ্যে-

এ ঘাস ফড়িং নীড়ে
শুধু কষ্টের চাষ হয় –
সাদা- কালো মেঘ কষ্ট হয়ে ঝরে
দূ’চোখের ভেজা পাতায় –!

প্রেম যখন কবিতায় আশ্রয় নেয়
শব্দের পরে শব্দরা হামাগুড়ি দেয়,
সীমাহীন শূন্যতা শব্দের সমুদ্র হাতড়ে বেড়াই
নির্জন প্রকৃতি গহীনের নৈঃশব্দ্য খসাবে
তবেই না স্বার্থক প্রেমের কবিতা হয়ে উঠবে।
তুমিই তো চেয়েছ কাঁটা ভরা পুষ্পের সীমাহীন
স্বপ্নাহত এক জীবন ,
যে জীবন নীড় ভাঙা পাখিদের হয়..
আমি না হয় সেই নীড় ভাঙা আহত সেই পাখি
আর সুখ পাখিটা তুমি ।

প্রেম যখন দরজার ওপাশে আড়ালে চলে যেতে চায় —
অর্তকিত ভালোবাসার পেয়ালায় মধু- বিষে গোপনে
মিশে যেতে চায় ,
মহামেঘে মৃত্যু এসে তখন দুয়ারে দাঁড়ায় —
আমি চোরাবালি চোরা কাঁটার ফাঁদে
জীবন বাজি রেখেছি বিষাদে —— !

প্রেম যখন নীল আকাশ হয়ে শ্রাবণ মেঘের ডানায় হারায়
মরণ সমুদ্র তখন সামনে এসে দাঁড়ায়–
কেঁপে কেঁপে ওঠে বুক
বাতাসে শূন্যতা উড়াই ,
সমুদ্র জলে ঢেউ এর মাঝে তবু ছায়াটুকু
স্থির থাকে — মেঘ অরণ্যের জলছবি হয়ে
শুধু স্মৃতিটুকুই সম্বল থাকে ….

আহত ব‍্যথাভরা বুকে–
কিযে রাখি , কিযে ফেলি
কিযে করি
বুঝিনা কিছু – ই — —–

Comments

comments